1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
লেবাননে প্রবাসী অধিকার পরিষদের ইফতার মাহফিল বেগম জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেবে সরকার : অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা : ভারতে শনাক্ত ২ কোটি ছাড়াল করোনা : বিধিনিষেধ আবারও বাড়ল, চলবে না দূরপাল্লার বাস অল ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফয়সাল ও সম্পাদক ফারুক মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল জামালপুরে নতুন কমিটি গঠন জেলহাজতে শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানী জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী “আঁখি হালদার” আয়েবপিসি’র কার্যনির্বাহী পরিষদের বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত জার্মানবাংলা’র ”প্রবাসির সাফল্য” শো’র এবারের অতিথি ”শিরীন আলম”

৩৭ লাখ বাংলাদেশির কর্মসংস্থান হয়েছে গত অর্থবছরে!

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ২১ মার্চ, ২০১৮
Check for details

গত এক বছরে কর্মসংস্থান হয়েছে মোট ৩৭ লাখ বাংলাদেশির। এর মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্থানকারী বাংলাদেশিদের সংখ্যা ১০ লাখ।

মঙ্গলবার (২০ মার্চ ) শেরে বাংলানগরে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) লেবার ফোর্স সার্ভে প্রতিবেদন প্রকাশে এ তথ্য উঠে আসে। প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ২০১৬ সালের জুলাই থেকে ২০১৭ সালের জুন মাস পর্যন্ত মেয়াদে জরিপটি চালানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশে প্রতি বছর জিডিপি বাড়লেও বাড়েনি কর্মসংস্থান। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের তুলনায় গত অর্থবছরে কর্মসংস্থান কমেছে প্রায় এক লাখ। পাশাপাশি বেড়েছে বেকারের সংখ্যা।

২০১৬-১৭ অর্থবছরে পুরোপুরি বেকারের সংখ্যা হিসাব করা হয় ২৬ লাখ ৬০ হাজার। এর আগের অর্থবছরে বেকারের সংখ্যা ছিল ২৬ লাখ। তবে তার আগের তিন বছর বেকারের সংখ্যা স্থির ছিল বলে উল্লেখ করা হয়। এ জরিপে কেউ কমপক্ষে এক ঘণ্টা কাজ করলে তাকে বেকার হিসেবে ধরা হয়নি।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বেকারের সংখ্যা বাড়লেও শ্রমশক্তি বৃদ্ধির হার ৪ দশমিক ২ শতাংশ। তাছাড়া কর্মসংস্থান বৃদ্ধির হার ২ দশমিক ২ শতাংশ। এরমধ্যে পুরুষদের ক্ষেত্রে শূন্য দশমিক ৯ শতাংশ এবং নারীদের ক্ষেত্রে ৪ দশমিক ৮ শতাংশ।

সারা দেশের এক লাখ ২৩ হাজার পরিবার থেকে তথ্য সংগ্রহ করে শ্রমশক্তি সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়। আগে প্রতি তিন মাস পর পর শ্রমশক্তি জরিপের তথ্য প্রকাশ করা হলেও, গত বছর থেকে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, এখন আর কেউ ঘরে বসে নেই। আগে মানুষ কাজ পেত না, আর এখন কাজের মানুষই পাওয়া যায় না। নারী-পুরুষ এক হয়ে কাজ করলে দেশ আরও সামনে এগিয়ে যাবে।

লেবার ফোর্স সার্ভে রিপোর্ট উপস্থাপন করেন বিবিএসের লেবার উইং পরিচালক কবির উদ্দিন আহাম্মদ। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান, বিবিএস সচিব সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্তী, বিবিএস মহাপরিচালক আমীর হোসেন প্রমুখ।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details