২য় দিন:চতুর্দশ জাতীয় শিশু কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব

Check for details

জার্মান-বাংলা ডেস্ক:উৎসবের ২য় দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গীকৃত পুস্পকানন নির্মান করেন জেলা থেকে আগত শিশু শিল্পীরা। ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শিশু উৎসবের দ্বিতীয় দিন একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে বিকাল ৫টায় হিমাদ্রী নাহা হিমু এর রচনা ও নির্দেশনায় স্বপ্নস্বর নাট্যদল মৌলভীবাজারের পরিবেশনায় নাটক স্বপ্নভঙ্গ, ৫.৪০ টায় জসীম উদ্দীন এর রচনায় এবং শেখ মোসফিকুর রহমান মিল্টনের নির্দেশনায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি শিশু নাট্যদল, সাতক্ষীরা’র পরিবেশনায় নাটক ডালিম কুমার, সন্ধ্যা ৬.৩০ টায় সামসুদ্দীন শাকিল এর রচনা ও নির্দেশনায় মৈত্রী শিশুদল ঢাকা পরিবেশন করে নাটক শীষনাথ, সন্ধ্যা ৭.২০টায় সুকুমার রায়ের রচনায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ঢাকা পরিবেশন করে নাটক অবাক জলপান এবং রাত 8টায় মনমথ রায়ের রচনায় মোঃ সুজন ইসলাম এর নির্দেশনায় ঝিনাইদহ শিশূ কিশোর নাট্যদলের পরিবেশনায় নাটক কানুর বাঁশি মঞ্চস্থ হয়।

স্টুডিও থিয়েটার হলে বিকাল ৫টা থেকে জেলা শিল্পকলা একাডেমি সাতক্ষীরা, মৌলভীবাজার, বাগেরহাট, নড়াইল, ফেনী, পটুয়াখালী, জামালপুর ও ঝিনাইদহ পরিবেশণ করে আবৃত্তি, একক অভিনয় ৭ই মার্চের ভাষণ এবং শিশুতীর্থ নাট্যদল নড়াইল এর পরিবেশনায় মুন্সি আসাদুর রহমানের রচনা ও এলাহী হোসেন এর নির্দেশনায় নাটক বিজয় মালা ও জেলা শিল্পকলা একাডেমি জামালপুর এর পরিবেশনায় কাজী নজরুল ইসলাম এর রচনা ও সাগর মুখার্জী এর নির্দেশনায় নাটক জাগো সুন্দর কিশোর মঞ্চস্থ হয়।

সন্ধ্যা ৫টায় একাডেমির জাতীয় সঙ্গীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে বিকাল ৫টায় পিন্টু সাহা ও নারায়ন নাথ এর সম্পাদনায় সিহাব উদ্দীন মন এর রচনায় এবং মালিয়া আক্তারের নির্দেশণায় পূবালী স্ংস্কৃতিক কেন্দ্র ফেনী’র পরিবেশনায় নাটক এখনো এমন, সুভংকর চক্্রবর্তী রচিত ও জহির বাবচ্চু নির্দেশিত পানগুছি থিয়েটার সেন্টার মোড়লগঞ্চ, বাগেরহাটের পরিবেশনায় নাটক মরা, সুজয় চক্্রবর্তী রচিত ও নির্দেশিত সুন্দরম চিলড্রেন্স থিয়েটার পটুয়াখালী পরিবেশন করে অবুঝ যন্ত্র, এম কবির রিপন এর রচনা ও নির্দেশনায় নন্দন শিশু থিয়েটার ঢাকার পরিবেশনায় নৃত্যনাট্য দোলনা থেকে কবর এবং হানিফ খান এর রচনা ও নির্দেশনায় কিশোর থিয়েটার ঢাকার পরিবেশনায় মঞ্চস্থ হয় নাটক মাতৃভূমি।

একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে বিকাল ৫টা থেকে সাতক্ষীরা, পটুয়াখালী, মৌলভীবাজার, নড়াইল, ফেনী, বাগেরহাট, জামালপুর ও ঝিনাইহদহ জেলা শিল্পকলা একাডেমির শিশু শিল্পীরা পরিবেশন করে একক সঙ্গীত, সমবেত সঙ্গীত ও সমবেত নৃত্য। এছাড়াও একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা প্লাজায় প্রতিদিন বিকাল ৪টা থেকে ৪.৪৫ টা জেলা থেকে আগত শিশুদের নিয়ে সমাবেশ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী ও মঞ্চকুড়ি পদক প্রদান করা হয় এবং রাত ৯টা থেকে ৯.৩০টা বিদায় সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়।
আগামীকাল ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ উৎসবের তৃতীয় দিন জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে রাজশাহীর ভোরহল নাট্যদল পরিবেশন করবে নাটক প্রসন্ন প্রকৃতি, সিরাজগঞ্জের নাট্য নিকেতন এর পরিবেশনায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছুটি, জেলা শিল্পকলা একাডেমি নাট্যদল রাঙ্গামাটির পরিবেশনায় তারুণ্যে আহ্বান, জেলা শিল্পকলা একাডেমি জয়পুর হাটের পরিবেশনায় নাটক পাখির ডানা। স্টুডিও থিয়েটার হলে বিকাল ৫টা থেকে জেলা শিল্পকলা একাডেমি রাজশাহী, নওগাঁ, জয়পুরহাট, চুয়াডাঙ্গা, নাটোর, রাঙ্গামাটি ও মাদারীপুর পরিবেশন করবে আবৃত্তি, একক অভিনয় ও ৭ মার্চের ভাষণ। এছাড়াও জাতীয় সঙ্গীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র এবং জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তন ও জাতীয় চিত্রশালা প্লাজায় প্রতিদিন নাটক, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, চিত্রাংকন অনুষ্ঠিত হবে।
গতকাল ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে উদ্বোধন হলো শিশু কিশোর নাট্য ও বিভিন্ন শাখার শিশু শিল্পীদের অংশগ্রহণে দেশের সবচেয়ে বড় আয়োজন ‘চতুর্দশ জাতীয় শিশু কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব ২০১৯’। সহস্রাধিক শিশুর অংশগ্রহণে উৎসবের উদ্বোধন ঘোষণা করেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি। এর আগে জাতীয় নাট্যশালা প্রাঙ্গণে অতিথিরা বেলুন উড়িয়ে নয় দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধন করেন। একইসাথে শিল্পী মোস্তাফা মনোয়ার রং তুলির আঁচড়ে শিশু চিত্রাঙ্কনের উদ্বোধন করেন।

Facebook Comments