1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman

সিলেটে পরিবহণ সংগঠনগুলোর ধর্মঘট চলছে

জার্মানবাংলা অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২০
Check for details

সিলেটে বন্ধ থাকা পাথর কোয়ারিগুলো খুলে দেওয়া, সিএনজিচালিত অটোরিকশায় গ্রিল সংযোজনের সিদ্ধান্ত বাতিলসহ কয়েকটি দাবিতে ধর্মঘটে নেমেছে সিলেটের পরিবহণ সংগঠনগুলো। এর মধ্যে বন্ধ থাকা পাথর কোয়ারিগুলো দেওয়ার দাবিতে আজ মঙ্গলবার থেকে টানা তিন দিনের ধর্মঘটে নেমেছে ট্রাক-পিকআপ-কাভার্ডভ্যান মালিক ঐক্য পরিষদ, বাস মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ ও পাথর ব্যবসায়ী মালিক ঐক্য পরিষদ।

এ ছাড়া সিএনজিচালিত অটোরিকশায় গ্রিল সংযোজনের সিদ্ধান্ত বাতিলসহ কয়েকটি দাবিতে ২১ ডিসেম্বর সোমবার থেকে ধর্মঘটে নেমেছে সিএনজি-অটোরিকশা মালিক ঐক্য পরিষদ।

এদিকে, পরিবহণ ধর্মঘটের জন্য ভোগান্তিতে পড়েছেন জেলার সাধারণ মানুষ। জরুরি প্রয়োজনে রাস্তায় নেমে এসেছেন অনেকেই। জেলার বাসিন্দারাও চাচ্ছেন, এ সমস্যার দ্রুত সমাধান হোক।

ধর্মঘটে একাত্মতা পোষণ করেছে সিলেটের পরিবহণ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সংগঠনও। যার ফলে আজ সকাল থেকে তিন দিন সিলেট থেকে সব ধরনের দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ থাকছে। জেলার কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যাবে না এবং কোনো বাস সিলেটে প্রবেশ করবে না। এ ছাড়া আন্তঃজেলা বাস চলাচলও বন্ধ রয়েছে। সিলেট জেলা পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সেলিম আহমদ ফলিক এ তথ্য জানিয়েছেন।

সেলিম আহমদ ফলিক বলেন, ‘পাথর কোয়ারিগুলো সচল করার দাবিতে আহ্বান করা ধর্মঘটে আমরাও একাত্মতা পোষণ করেছি। ফলে আজ ২২ ডিসেম্বর মঙ্গলবার থেকে সিলেটে যাত্রী ও পণ্যবাহী সব ধরনের পরিবহণ বন্ধ থাকবে।’

এদিকে, নিজেদের দাবি নিয়ে গতকাল সোমবার বিকেলে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মালিক ঐক্য পরিষদের নেতারা।

সন্ধ্যায় বৈঠক শেষে মালিক ঐক্য পরিষদ ও সিলেট জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের সভাপতি গোলাম হাদী ছয়ফুল বলেন, ‘বৈঠক ফলপ্রসূ হয়নি। তিন দিনের ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।’

সিলেট বিভাগের অন্য তিন জেলায়ও ধর্মঘট চলবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার নেতাদের সঙ্গে আলাপ করেই এ কর্মসূচি দিয়েছি।’

পরিবেশ ধ্বংস ও ব্যাপক প্রাণহানির পর সিলেটের পাথর কোয়ারিগুলো থেকে পাথর উত্তোলন নিষিদ্ধ করে খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়। এ সিদ্ধান্তের ফলে পরিবহণ ব্যবসায়ী ও শ্রমিকেরা সংকটে পড়েছেন দাবি করে পাথর কোয়ারিগুলো খুলে দেওয়ার জন্য আন্দোলনে নামে সিলেট বিভাগীয় ট্রাক-পিকআপ-কাভার্ডভ্যান মালিক ঐক্য পরিষদ ও সিলেট জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপ। ধারাবাহিক আন্দোলনের পর (আজ) মঙ্গলবার থেকে তারা ধর্মঘটের ডাক দেয়।

এদিকে, সিএনজিচালিত অটোরিকশায় গ্রিল সংযোজনের নির্দেশনা প্রত্যাহারসহ ছয় দফা দাবিতে সিলেটে গতকাল সোমবার সকাল থেকে ৪৮ ঘণ্টার ধর্মঘট পালন করছেন অটোরিকশা শ্রমিকরা। ধর্মঘটের কারণে সিলেটে বন্ধ রয়েছে অটোরিকশা চলাচল। এ ধর্মঘট চলবে আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত। এ কর্মসূচির কারণে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে মানুষকে। নগরীর ভেতরে ও আশপাশের এলাকায় চলাচলকারী যাত্রীদের সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়তে হয়।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details