1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব সখীপুরে ‘মুক্তিযুদ্ধের কবিতা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন নাইজেরিয়ায় ইসলামিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ২০০ শিশুকে অপহরণ ঘুর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে সাতক্ষীরার উপকুলীয় এলাকায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি লেবানন আ’লীগের সম্মেলন: সভাপতি বাবুল মিয়া, সম্পাদক তপন ভৌমিক সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্থা ও মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারের ঘটনায় জামালপুর প্রেসক্লাবের প্রতিবাদ সখীপুর এস.পি.ইউ.এফ’র ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন লেবাননে প্রবাসী অধিকার পরিষদের ইফতার মাহফিল বেগম জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেবে সরকার : অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা : ভারতে শনাক্ত ২ কোটি ছাড়াল

সিরাজগঞ্জে ধানে পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণে হতাশ কৃষক

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ২ নভেম্বর, ২০১৮
Check for details

এইচ এম আলমগীর কবির, সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলায় রোপা আমন ধানে পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণে হতাশ হয়ে পড়েছেন কৃষকরা। পাতা মোরানো পোকার আক্রমণে ধানগাছ প্রথমে হলুদ পরে শুকিয়ে বাদামি রং ধারণ করছে এমনটাই অভিযোগ কৃষকের।

কৃষকরা অভিযোগ করে বলেন, কীটনাশক বা বিষ ছিটিয়েও কোন ফল পাওয়া যাচ্ছে না। ফসলের মাঠজুড়ে শুধু পোকা আর পোকা। পোকা দমনে বাজারে যে সকল কীটনাশক পাওয়া যাচ্ছে সেগুলোতেও কোন কাজ হচ্ছেনা। এমনকি কীটনাশক স্প্রে করার পরও কোন লাভ হচ্ছেনা। ফলে আমনের ফলন নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন কৃষক। সময় মতো পোকা দমন করতে না পারলে এবার রোপা আমন উৎপাদন ব্যাহত হতে পারে বলে মনে তারা।

এ বিষয়ে কথা হয় উপজেলার ভদ্রঘাট ইউনিয়নের হাটগারা গ্রামের কৃষক আব্দুল হামিদ, সাদ্দাম হোসেন, হযরত আলী, জাফর সেখ জানান, কড়া সুদে ঋন নিয়ে এবার আমন ধান চাষ করেছিলেন। ধান বের হতেনা হতেই পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে। এই পোকা ধান গাছের পাতা খেয়ে বিবর্ণ করে ফেলছে। এদিকে মাঠে পাওয়া যাচ্ছে না কৃষি অফিসের কোন পরামর্শদাতাকে। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই সার বিক্রেতার পরামর্শ অনুযায়ী কীটনাশক স্প্রে করছি। কিন্তু কোন কাজ হচ্ছে না। এবার ধানের ফলন নিয়ে খুব চিন্তায় আছ।

একই গ্রামের কৃষক ফারুক আহমেদ বলেন, এ বছর প্রায় আমার ৮ বিঘা জমিতে পোকা আক্রমণ করেছে। কীটনাশক স্প্রে করেও পোকা দমন করা যাচ্ছে না। কৃষি কর্মকর্তাদেরও মাঠে পাওয়া যাচ্ছে না। তাই তিনি শঙ্কায় আছেন যদি ফলন ভাল না হয়, তাহলে পরিবার নিয়ে পথে বসতে হবে এমনটাই বললেন তিনি।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এ বছর উপজেলায় ৫ হাজার ২৭০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধানের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল প্রায় ৫ হাজার ১০০ হেক্টর জমিতে।

কামারখন্দ উপজলো কৃষি স¤প্রসারণ র্কমর্কতা আনোয়ার সাহাদ বলেন, পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে আমরা সরজমিনে পরিদর্শন করেছি। এতে কৃষকদের হতাশা হবার কিছু নেই পোকা দমনে আমরা মাঠ পর্যায়ে কাজ করছি।

এদিকে বাড়তি সুদে এ বছর আমন ধানের আবাদ করেছিলেন কৃষকরা । কিন্তু সেই ধানে পোকার আক্রমণ দেখা দেয়ায় লোকসানের আশঙ্কায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। এই বিপদের দিনে কৃষি কর্মকর্তারাও মাঠে নেই বলে অভিযোগ করেছেন কৃষকরা। তবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ সেই অভিযোগ নাকচ করে বলছেন কিছু কিছু আমন ক্ষেতে পাতা মোড়ানো পোকা রোগ দেখা দিয়েছে। বিষয়টি জানার পর আমরা মাঠে গিয়েছিলাম। তবে যে পোকা আক্রমন করেছে তা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। এই অবস্থা কাটিয়ে উঠতে কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। তার পরও এসব রোগ-বালাই নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। মাঠ পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তারা কাজ করছেন ও পরামর্শ প্রদান করছেন।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details