1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
সখীপুর এস.পি.ইউ.এফ’র ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন লেবাননে প্রবাসী অধিকার পরিষদের ইফতার মাহফিল বেগম জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেবে সরকার : অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা : ভারতে শনাক্ত ২ কোটি ছাড়াল করোনা : বিধিনিষেধ আবারও বাড়ল, চলবে না দূরপাল্লার বাস অল ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফয়সাল ও সম্পাদক ফারুক মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল জামালপুরে নতুন কমিটি গঠন জেলহাজতে শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানী জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী “আঁখি হালদার” আয়েবপিসি’র কার্যনির্বাহী পরিষদের বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত

‘সিনহার অ্যাকাউন্টে’ ৪ কোটি টাকা জমা দেয়া দু’জনকে দুদকে তলব

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল, ২০১৮
Check for details
  • নিজস্ব প্রতিবেদক

ফারমার্স ব্যাংক থেকে চার কোটি উত্তোলন করে অবৈধভাবে আত্মসাৎ করার অভিযোগে দুই ব্যবসায়ীকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ২৫ এপ্রিল বুধবার দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন স্বাক্ষরিত চিঠিতে আগামী ৬ মে তাদেরকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বলেন, ‘ফারমার্স ব্যাংক থেকে ব্যবসায়ী নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা এবং মোহাম্মদ শাহজাহান ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে একই দিনে প্রত্যেকেই দুই কোটি করে চার কোটি টাকা উত্তোলন করে একই দিনে পে অর্ডারের মাধ্যমে রাষ্ট্রের একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে জমা দেন। গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট থেকে একই দিনে টাকা তুলে আত্মসাৎ করা হয়।’

তিনি বলেন, এই অভিযোগে তাদেরকে ৬ মে তলব করেছে দুদক। এই অভিযোগের তদন্তের জন্য সৈয়দ ইকবাল হোসেন তাদেরকে তলব করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুদকের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘এই টাকা মূলত সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহার অ্যাকাউন্টে জমা হয়। সেখান থেকে টাকাগুলো আত্মসাৎ হয়।’

ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘এবিষয়ে এখনই কিছু বলা না গেলেও তদন্তের মাধ্যমে জানা যাবে, তার অ্যাকাউন্টেই জমা হয়েছিল চার কোটি টাকা।’

সংশ্লিষ্ট অন্য এক কর্মকর্তা বলেন, সাধারণত হঠাৎ ব্যাংকে অস্বাভাবিক লেনদেন হলে দুদক আইনে সেটা মানি লন্ডারিং গণ্য হয়ে থাকে। এই টাকা আত্মসাৎ করায় অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তাদেরকে তলব করা হয়েছে। ঘটনাটি ২০১৬ সালের দিকে ঘটে।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details