1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানিতে বিএনপি’র কর্মীসভা ‘বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার’ : এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার জার্মান বিএনপির হেছেন প্রাদেশিক কমিটির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা

সান্তাহারে ১৩ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারে কর্তৃপক্ষের নজর নেই

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ৪ আগস্ট, ২০১৮
Exif_JPEG_420
Check for details

তরিকুল ইসলাম জেন্টু, আদমদীঘি (বগুড়া): বগুড়ার সান্তাহারের সাইলো সড়ক থেকে কদমা হয়ে আদমদীঘি রেলস্টেশন পর্যন্ত পাকা সড়কের বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে শতশত গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। পানি জমে থাকায় সড়কটির বেহাল দশা। ফলে চলতি বর্ষা মৌসুমে যানবাহনসহ জনসাধারণ মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে চলাচাল করতে হচ্ছে। এলাকাবাসী জরুরীভিক্তিতে সড়কটি মেরামত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করেছেন।

স্থানীয়রা জানায়, বগুড়ার সান্তাহার সাইলো সড়ক থেকে দমদমা, কদমা ও মণ্ডবপুর হয়ে আদমদীঘি রেলগেট পর্যন্ত প্রায় ১৩ কিলোমিটার রাস্তা প্রায় ১৮বছর পূর্বে পাকাকরণ করা হয়। এই গুরুত্বপুর্ণ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন যানবাহনের পাশাপাশি ২৪/২৫টি গ্রামের হাজার হাজার মানুষ উপজেলা সদর ও সান্তাহার পৌরশহর দিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করে থাকেন। এই সড়কটি পাকাকরণের পর সংস্কার কাজ করা হলেও কিছুদিন পার হতেই আবারও বিভিন্ন অংশে ছোট বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়। বৃষ্টির পানিতে এসব গর্ত ভরে থাকায় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়া সড়কের কিছু অংশে মাটি ও বালু এমনভাবে দেয়া হয়েছে যা দেখলে বোঝার উপায় নেই যে এটা পাকা সড়ক।

করজবাড়ী গ্রামের চার্জার চালিত অটো রিক্সা চালক জাহিদুল ইসলাম জানান, কদমা টু সান্তাহার যেতে আগের থেকে এখন দ্বিগুণ সময় লাগে। দমদমা গ্রামের ব্যাবসায়ী মেহেবুব আলম বলেন, এলাকাবাসী হাট বাজারে ধান-চাল, তরিতরকারি সড়কটি দিয়ে মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন। প্রায় সময় দুর্ঘটনার মুখোমুখি হতে হচ্ছেন পথচারীরাও।

দমদমা গ্রামের তরুণ সমাজ সেবক জামিল হোসেন জানান, এই সড়কটি সংস্কার করা হলে গাড়ী চালক, ছাত্র-ছাত্রীসহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষের কষ্ট লাঘব হবে। সড়কটির করুন দশার কারণে মূমূর্ষ রোগী বহনে বড় কঠিন অবস্থায় আছে এলাকাবসী। এমনকি ঝুঁকিপূর্ণ সড়কের কারণে শহর থেকে ভালো ডাক্তারও আসতে চান না।

উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মতিন সাংবাদিকদের জানান, আদমদীঘি সদর থেকে মণ্ডবপুর কদমা ও দমদমা হয়ে সান্তাহার সাইলো রাস্তা পর্যন্ত ওই সড়কটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের হওয়ায় সংস্কার করা সম্ভব হচ্ছে না।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details