1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মান বিএনপির হেছেন প্রাদেশিক কমিটির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা করোনা : সাতক্ষীরা পুলিশের মোটরসাইকেল র‌্যালি ও মাস্ক বিতরণ লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব

সরকারিকরণের পরেও কমানো হয়নি শিক্ষার্থীদের বেতন

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৯
Check for details

খুলনা প্রতিনিধিঃ খুলনা মহানগরীর বয়রাস্থ সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ সরকারিকরণের পরেও কমানো হয়নি শিক্ষার্থীদের বেতন। আগের মতই বেসরকারি কলেজের মতই বেতন ফিস দিয়ে যাচ্ছেন সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অধ্যক্ষের নিষেধ অমান্য করেই করেছে মানববন্ধন। অধ্যক্ষ বলেছেন তিনি কলেজ ত্যাগ করার পরে দুপুরের দিকে মানববন্ধন করা হয়েছে।

জানা গেছে, ২০১৭ সালে প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে সরকারিকরণ করা হয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রকল্পে আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠান বয়রাস্থ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। কলেজটি সরকারিরণের পর থেকে অদ্যাবধি কোনো শিক্ষক-কর্মকর্তাকে সরকারি সুযোগ-সুবিধার অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। যার কারণে কমানো হয়নি শিক্ষার্থীদের বেতনও। প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে শিক্ষার্থী প্রতি বেতন সংগ্রহ করা হয় ৩৫০ টাকা, মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৪০০ টাকা এবং কলেজের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৫০০ টাকা।
এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর বয়রাস্থ খুলনা সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ গেটের সামনে শিক্ষার্থীদের সরকারি বেতন নেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেন। তাদের দাবি ছিল, ২০১৭ সালে কলেজটি সরকারিকরণ করা হয়েছে। কিন্তু প্রতি মাসে বেতন নেওয়া হচ্ছে ৩৫০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত। অথচ সরকারি কলেজের বেতন মাত্র ২৫ টাকা। এ সময় কিছু অভিভাবককে আন্দোলনে অংশ নিতে দেখা যায়। এছাড়া দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা তাদের আন্দোলন চালাবে বলে জানা গেছে।

সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ শেখ মোঃ বদিউজ্জামান বলেছেন, ২০১৭ সালে মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ সরকারিকরণের প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়। তবে দু’ বছরেও সরকারিভাবে শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দায়িত্ব প্রদান করা হয়নি। তবে সকল কাগজপত্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। কাজ চলমান আছে। ৬ মাসের মধ্যে সরকারি বেতন ও সরকারিকরণের সকল ব্যবস্থা চালু হবে বলে আশা করছি। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আগের নিয়মে বেতন সংগ্রহ করা হয়। সরকারিকরণের পর থেকে সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যায়নি। মানববন্ধন করতে শিক্ষার্থীদের নিষেধ করা হলেও তারা তা মানেনি। তাদের দাবি আদায়ের অধিকার রয়েছে। তিনি কলেজে না থাকাকালীন সময়ে এই মানববন্ধন করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীদের বোঝানো হবে। অধ্যক্ষ প্রতিষ্ঠান ত্যাগ করার পরে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে শিক্ষকদের কোনো ইন্ধন ছিল কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, তিনি বিষয়টি জানেন না। এ ধরনের ইন্ধন থাকলে তিনি মোটেই শিক্ষকসুলভ আচরণ করেননি।
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা খুলনা অঞ্চলের পরিচালক প্রফেসর শেখ হারুনর রশীদ বলেন, এ বিষয়ে কোনো ধরনের অভিযোগ পেলে সরকারি বিধি অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details