1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : germanbangla24.com : germanbangla24.com
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল জামালপুরে নতুন কমিটি গঠন জেলহাজতে শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানী জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী “আঁখি হালদার” আয়েবপিসি’র কার্যনির্বাহী পরিষদের বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত জার্মানবাংলা’র ”প্রবাসির সাফল্য” শো’র এবারের অতিথি ”শিরীন আলম” জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী “ফারহা নাজিয়া সামি” বাংলাদেশে হরতাল প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেনঃ উচ্ছৃঙ্খলতা বন্ধ না করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয় হবে। জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী “মিনহাজ দীপন“ সাকিব আল হাসানের বক্তব্যে কঠোর বিসিবি জার্মানবাংলা’র “প্রবাসির সাফল্য” শো’র এবারের অতিথি “কাইয়ুম চৌধুরী”

‘সন্ত্রাসবাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষক’ থেকে মুক্তি পেল সুদান

জার্মানবাংলা অনলাইন ডেস্ক:
  • প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০
Check for details

টানা ২৭ বছর কালো তালিকায় রাখার পর ‘সন্ত্রাসবাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষক’ হিসেবে সুদানের নাম বাদ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ১৪ ডিসেম্বর সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে সুদানের নাম ওই তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সুদানের বিষয়ে নতুন এ সিদ্ধান্তের প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন। সুদানের যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

দূতাবাসের অফিসিয়াল ফেসবুক পোস্টে বলা হয়, সোমবার থেকে সুদানের নাম আর কালো তালিকায় থাকছে না। ৪৫ দিন ধরে কংগ্রেশনাল পর্যালোচনার পর দেশটির বিষয়ে আগের মূল্যায়ন পরিবর্তন করা হয়েছে বলেও জানায় দূতাবাস। দ্রুত এই সিদ্ধান্ত ফেডারেল রেজিস্ট্রারে প্রকাশ করা হবে।

সুদানে গত বছর দীর্ঘদিনের শাসক ওমর আল বশিরের পতনের পর বর্তমান অন্তবর্তীকালীন সরকার দায়িত্ব পালন করছে। কালো তালিকা থেকে সুদানের নাম প্রত্যাহার এ সরকারের অগ্রাধিকারভিত্তিক এজেন্ডা ছিল।

১৯৯৩ সালে আল বশির সরকারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে সন্ত্রাসে পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগ তুলে কালো তালিকায় সুদানের নাম যোগ করে যুক্তরাষ্ট্র। এর কারণে এতোদিন সুদান ত্রাণ এবং আন্তর্জাতিক বড় দাতাসংস্থাগুলোর কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details