1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব সখীপুরে ‘মুক্তিযুদ্ধের কবিতা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন নাইজেরিয়ায় ইসলামিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ২০০ শিশুকে অপহরণ ঘুর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে সাতক্ষীরার উপকুলীয় এলাকায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি লেবানন আ’লীগের সম্মেলন: সভাপতি বাবুল মিয়া, সম্পাদক তপন ভৌমিক সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্থা ও মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারের ঘটনায় জামালপুর প্রেসক্লাবের প্রতিবাদ সখীপুর এস.পি.ইউ.এফ’র ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন লেবাননে প্রবাসী অধিকার পরিষদের ইফতার মাহফিল বেগম জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেবে সরকার : অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা : ভারতে শনাক্ত ২ কোটি ছাড়াল

শার্শার উলশীর নীলকুঠি ফ্যামিলি পার্কে প্রকাশ্যে অবৈধ দেহ ব্যবসা!

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
Check for details

আরিফুজ্জামান আরিফ বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোরের শার্শা উপজেলায় উলশী বাজার সংলগ্ন বহু অপকর্মের হোতা ও গিলাপোল খৃষ্টান সম্প্রদায়ের বাড়ীতে হামলার মামলার প্রধান আসামী মিলন মেম্বরের রয়েছে নিলকুঠি ফ্যামিলি পার্ক। বিনোদনের নামে এখানে চলে যতসব অসামাজিক বিনোদন। এ পার্কে প্রশাসনের নাকের ডগায় চলছে প্রকাশ্যে অবৈধ দেহ ব্যবসা। প্রকাশ্যে দিবালোকে এ দেহ ব্যবসা চললেও কারো কোন মাথা ব্যাথা নেই দেখার।

যশোর সাতক্ষীরা মহাসড়কের উলাশী বাজার থেকে একটু দুরেই গড়ে উঠেছে এ
নীলকুঠি ফ্যামিলি পার্ক। নির্ভৃত পল্লীতে অবস্হিত এ পার্কে বিভিন্ন জায়গা থেকে উঠতি বয়সের মেয়ে এবং কিছু ভাসমান পতিতা এনে মিলন মেম্বর ও তার কর্মচারীরা দেহ ব্যবসা করে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।

স্থানীয় লোকের অভিযোগ, প্রতিদিন যশোর নাভারন ঝিকরগাছা, কলারোয়া, সাতক্ষীরা, বেনাপোল, শার্শা সহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে আসা যৌন কর্মী আবার অনেকের গার্ল ফ্রেন্ডকে সাথে নিয়ে শার্শার উলাশীর মিলন মেম্বরের নীলকুঠি পার্কে অবৈধ মেলামেশা করে চলে যাচ্ছে। এলাকার উঠতি বয়সের স্কুল, কলেজ গামী ছেলে মেয়েরা ও ঝুকে পড়ছে এ দেহ ব্যবসায়।

নীলকুঠি পার্কের গেটে বসে থাকা ভ্যান চালক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা দেহব্যবসায়িরা উলশী বাস থেকে নেমে অনেক বোরখা পরে এখানে আসে। এক দুই ঘন্টা পরে এরা আবার চলে যায়। এখানে পার্কের ভিতর ছোট ছোট করে কাচের জানালা বেষ্টিত ঘর করা আছে। খরিদ্দার ঘরে প্রবেশ করলে বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়। যাতে বাইরে থেকে হঠাৎ গেলে বুঝবে ঘর বন্ধ। কিন্তু ভেতরে চলে যতসব অসামাজিক কাজ। এসব ঘরে মেয়ে খরিদ্দার নিয়ে এরা প্রবেশ করে। তারপর তাদের কাজ শেষে এরা চলে যায়।

পার্কের কর্মচারীদের সাথে আলাপ কালে তারা জানায়, আমরা যারা মেয়ে নিয়ে আসে তাদের নিকট থেকে ঘর ভাড়া ঘন্টায় ১ হাজার টাকা নেই। আার যারা আমাদের মাধ্যমে মেয়ে নেয় তাদের নিকট থেকে আমরা মেয়ে ভেদে দেড় হাজার থেকে ২ হাজার টাকা নেই। এখানে রয়েছে পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা। সারাদিন এ পার্কের ভিতর সকাল থেকে রাত অবধি চলে দেহ ব্যবসা।

পরিচয় গোপন রেখে জানতে চাইলে কর্মচারী বলেন, আপনারা বোঝেন তো পার্ক হচ্ছে একটি বিনোদনের জায়গা। এখানে কিছু এদিক সেদিক কাজ না হলে পার্ক চলবে কি করে।

শার্শার উঠতি বয়সের ছেলে মেয়েরা খারাপ হয়ে যাচ্ছে একমাত্র এই পার্কের জন্য। নষ্ট হচ্ছে এলাকার পরিবেশ। এখানে পরিবার পরিজন নিয়ে বিনোদনের জন্য যাওয়ার কোন প্রশ্নই উঠে না। কারন এখানে গেলে যে দৃশ্য সামনের উপর দেখা যায় তাতে সাধারণ মানুষ সব কিছু উপলব্ধি করতে পারে, এখানে কি হয়।

দীর্ঘদিন ধরে মিলন মেম্বর পার্কের আড়ালে এঅবৈধ দেহ ব্যাবসা চালিয়ে যাচ্ছে।
আর এ পার্ক নিয়ন্ত্রনের জন্য মিলন মেম্বরের রয়েছে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী। ফলে তার ও তার বাহিনীর ভয়ে এলাকাবাসীরা পার্ক নিয়ে মুখ খুলতে সাহস পায়না।

এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকার সচেতন মহল।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details