1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
পদ্মায় ফেরিডুবি :পাটুরিয়ায় ডুবে গেছে শাহ আমানত ফেরি জার্মানিতে বিএনপি’র কর্মীসভা ‘বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার’ : এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার জার্মান বিএনপির হেছেন প্রাদেশিক কমিটির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ

লিসবনের”স্টার কাবাব” দিচ্ছে মাত্র এক ইউরোতে সুস্বাদু হালাল কাবাব

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৯
লিসবনে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ১ ইউরো তে বিশেষ হালাল কাবাব
Check for details

লিসবন (পর্তুগাল)থেকে মোঃ রাসেল আহম্মেদ।।লিসবন সহ ইউরোপের বিভিন্ন শহর যখন ব্যয় বহুল শহরের তকমা পাচ্ছে এবং খাবার দাবার সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দাম নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে সেই সময়ে বাংলাদেশী এক প্রবাসী উদ্যোক্তা গড়ে তুলেছেন ১ ইউরোর হালাল কাবাব শপ।

সকাল দুপুর কিংবা রাতে বাংলাদেশী কমিউনিটির মানুষ সহ স্থানীয় মানুষজন এবং বিপুল সংখ্যক পর্যটক এখানে ভিড় জমায় এই লোভনীয় অফারের জন্য। ইতিমধ্যে এই উদ্যোগ ভাল সারা ফেলেছে গ্রহকদের মধ্যে।
স্টার কাবাব’র এই আকষর্ণীয় এবং সুস্বাদু কাবাবের পাশাপাশি রয়েছে হালাল গ্রিল চিকেন, দোরাদা ফিস, তান্ডুরী চিকেন এবং নান রুটি সহ বিপুল পরিমাণ আকষর্ণীয় মেনু।

বাংলাদেশী অভিবাসী অধ্যুষিত এলাকার খুব নিকটে আরোইশ মেট্রো থেকে মাত্র দুই মিনিট হাটার দুরত্বে রুয়া মোরাইশ সোরেশ – ৮৫ ( Rua Morais Soares – 85, 1900-342 ) লিসবন এ রেস্টুরেন্ট টি অবস্থিত।
এবিষয়ে কথা হয় স্টার কাবাব’র উদ্যোক্তা মোহাম্মদ ফারুকের সাথে। তিনি জানান এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগের পেছনের কথা। লিসবন বর্তমানে একটি কাবাব ৪/৫ ইউরো এবং মেনুসহ নিলে ৭/৮ এর মত হয়ে যায়। ফলে অনেক কাস্টমার ইচ্ছে থাকার সত্বেও তা কিনতে পারছে না।

তিনি আরো জানান, আমার চিন্তা ছিল বিক্রি বেশী করে লাভ কম করা এবং তা আরম্ভ করার পর আজ সবকিছু পরিকল্পনা মত চলছে। এমন ব্যতিক্রম আয়োজন করতে পেরে একজন বাংলাদেশী হিসেবে ভাল লাগছে। বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষ এবং স্কুল কলেজ এর শিক্ষার্থীদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ১ ইউরো এর বিশেষ কাবাব।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details