1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব সখীপুরে ‘মুক্তিযুদ্ধের কবিতা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন নাইজেরিয়ায় ইসলামিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ২০০ শিশুকে অপহরণ ঘুর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে সাতক্ষীরার উপকুলীয় এলাকায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি লেবানন আ’লীগের সম্মেলন: সভাপতি বাবুল মিয়া, সম্পাদক তপন ভৌমিক সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্থা ও মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারের ঘটনায় জামালপুর প্রেসক্লাবের প্রতিবাদ সখীপুর এস.পি.ইউ.এফ’র ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন লেবাননে প্রবাসী অধিকার পরিষদের ইফতার মাহফিল বেগম জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেবে সরকার : অ্যাটর্নি জেনারেল করোনা : ভারতে শনাক্ত ২ কোটি ছাড়াল

মদনে বরযাত্রীর ট্রলার বিদ্যুতায়িত হয়ে নিহত ১, বরসহ আহত ২০

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৮
Check for details

তোফাজ্জল হোসেন, মদন প্রতিনিধি: বিদ্যুৎ বিভাগের খামখেয়ালীপনায় বর সেজে শ্বশুর বাড়ী যাওয়া হলো না আশরাফুলের । মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) উপজেলার তিয়শ্রী ইউনিয়নের বাস্তা গ্রামের আব্দুর বারেকের ছেলে আশরাফুল বরযাত্রীসহ ট্রলার যোগে বিয়ের উদ্দেশ্যে মোহনগঞ্জ উপজেলার বরান্তর গ্রামের সুরত আলী’র বাড়ি যাত্রা করার সময় উপজেলার গঙ্গানগর গ্রামের হারুন মিয়ার ছেলে আল মামুন (২২) বিদ্যুৎ পৃষ্টে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এ সময় বর আশরাফুলসহ আরো ৩০ বরযাত্রী আহত হয়েছেন। উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক ডাঃ মোহাম্মদ ফখরুল হাসান চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

প্রত্যেক্ষদর্শীর বিবরনে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় ৫০/ ৬০ জন বরযাত্রী নিয়ে তিয়শ্রী বাস্তা গ্রাম থেকে মোহনগঞ্জ উপজেলার বরান্তর গ্রামে যাবার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে কাইকুড়িয়া গ্রামের সামনে পৌছলে বিদ্যুতের ছেড়া তারে ট্রলারটি জড়িয়ে পড়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে যায়। ট্রলারের ছাদের উপরে থাকা লোকজন পানিতে পরে যায় এবং ভিতরে থাকা লোকজনের আত্ম চিৎকারে কাইকুড়িয়া গ্রামের লোকজন নৌকা যোগে এদেরকে উদ্ধার করে মদন হাসপাতালে নিয়ে এলে পথে বরযাত্রী গঙ্গানগর গ্রামের হারুন মিয়ার ছেলে আলমামুন (২২) মারা যায়। মদন হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আহত বর বাস্তা গ্রামের আশরাফ সহ ঐ গ্রামের বরযাত্রী লিপ্টন, হাবু, মহসিন, বাবুল, শাফায়েতুল, রাফি, সৌরভ, নৌকার সারেং রাজ্জাকের অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। বাকি আহত আরিফ, মইনুল, হাফিজ, ও ইজ্জত আলীকে মদন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর লিখা সময় পর্যন্ত হাসপাতালে আগত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে ।

উল্লেখ্য বাস্তা গ্রামের আব্দুল বারেকের ছেলে আশরাফ মিয়ার সাথে মোহনগঞ্জ উপজেলার বরান্তর গ্রামের ছোহরাব আলীর মেয়ে মিতা আক্তারের সাথে শুভ বিবাহের দিন ধার্য্য ছিল।

কাইকুড়িয়া গ্রামের প্রত্যেক্ষদর্শী সুমন মিয়া জানান, দীর্ঘদিন ধরে গ্রামের সামনের হাওরে বিদ্যুতের খুটিঁতে তাঁর ছিড়ে ঝুলে থাকার খবর আমরা বিদ্যুৎ অফিসে পৌছালেও ব্যবস্থা না নেওয়ায় এ দূর্ঘটনা ঘটেছে এবং আরো দূর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে।

স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ ফখরুল হাসান চৌধুরী জানান, বরযাত্রী ট্রলারটি বিদ্যুতায়িত হয়ে একজন নিহত ও বিশ জনের মতো আহত হয়ে মদন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদের মধ্যে নয় জনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।

পল্লী বিদ্যুত মদন জোনাল অফিসের ডিজিএম মাহবুব আলী জানান, দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে অত্র বিভাগের এজিএম কে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তবে বিদ্যুতের ছেড়া তারে এ দূর্ঘটানা ঘটেছে কিনা তা নিশ্চত করে বলা যাচ্ছেনা।

ওসি মোঃ রমিজুল হক জানান, বিদ্যুুতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলে একজন বরযাত্রী নিহত এবং বহুলোক আহত হওয়ার খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে যাচ্ছি। পরিবারের লোকজনের আবেদনের প্রেক্ষিতে নিহত আলমামুনের লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোঃ ওয়ালী উল হাসান বলেন, দুর্ঘটনার সংবাদ পাওয়া মাত্রই হাসপাতালে রোগীদের দেখতে যাই ও তাদের সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা নেই এবং তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে এলাকায় যাচ্ছি।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details