1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : germanbangla24.com : germanbangla24.com
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানবাংলা’র ”প্রবাসির সাফল্য” শো’র এবারের অতিথি ”মিনহাজ দীপন” জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী ”ফারজাহান রহমান শাওন” বাগেরহাটে ৭ দিনব্যাপী বই মেলা শুরু জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি, বাচিকশিল্পী “জান্নাতুল ফেরদৌসী লিজা” টিকার দ্বিতীয় ডোজ ৮ সপ্তাহ পর : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ১৪ ফেব্রুয়ারি, উপেক্ষিত ‘সুন্দরবন দিবস’ জীবননগর পৌর নির্বাচন : আচরণবিধি লঙ্ঘন ,৩ জনের সাজা জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি শিল্পী ”বিথী পান্ডে” বাগেরহাটে ওরিয়ন গ্রুপের বিরুদ্ধে গ্রাম্য সড়ক দখলের অভিযোগ বাগেরহাটে জুয়েলারি দোকান হতে ১০০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি

মদনে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বাঁধ কেটে মাছ নিধনে প্রভাবশালীরা

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: সোমবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৮
Check for details

তোফাজ্জল হোসেন, মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি: নেত্রকোনার মদন উপজেলার সদর ইউনিয়নের চলতি অর্থবছরে দশ লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে পাঁচকুনিয়া ও পরাজকুনিয়া হাওরের ফসল রক্ষা পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়ি বাধঁ কেটে মাছ নিধন করছে এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী ব্যাক্তিরা। পানি নিচে নেমে যাওয়ায় বোরো ধানের আবাদ নিয়ে আশঙ্খায় ভুগছেন এলাকার কৃষকগণ।

অভিাযোগে প্রকাশ, মদন উপজেলার দক্ষিনপাড়া গ্রামের আওয়াল, রুহুল আমীন সহ ৯/১০ জন ব্যক্তি মাছ ধরে নিজেরা লাভবান হওয়ার লক্ষে চলতি অর্থবছরে দশ লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে নির্মিত পানি উন্নয়ন বোর্ডরের ফসল রক্ষা পাচকুনিয়া ও পরাজকুনিয়া হাওরের বেড়ি বাধঁ কেটে ফেলেছে। ফলে হাওরের উঁচু জমির পানি শুকিয়ে যাচ্ছে। এতে বোরো ধান আবাদের সময় ওই জমিগুলো পানির অভাবে অনাবাদি থাকার আশঙ্খা রয়েছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসীর পক্ষে কাওসার মিয়া গত ৮ অক্টোবর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়েরে করেছেন। রোববার (১৩ অক্টোবর) পর্যন্ত উক্ত বেড়ি বাঁধ কেটে মাছ ধরা অব্যাহত রয়েছে।

মদন ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য আবুল কাশেম মানিক জানান, এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের দ্রুত আশু হস্তক্ষেপ প্রয়োজন।

অভিযুক্ত প্রভাবশালী আওয়াল, রুহুল আমীন, ফারুক জানান, বেড়ি বাধেঁর ভিতরে আমাদের জমি পত্তন দিয়েছি মাছ নিধনের জন্য। কিন্তু বেড়ি বাধঁ কেটে মাছ নিধনের জন্য নয়। এই বাধঁটি এমনিতেই ভেঙ্গে যায়।

এ ব্যাপারে মদন ইউপি চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান শেখ মানিক জানান, আমি শুনেছি বেড়ি বাধঁ কেটে হাওরের পানি শুকিয়ে মাছ নিধন করছে। বিষয়টি কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে দ্রুত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

ইজারাদার নজরুল ইসলাম জানান, আমি দক্ষিণপাড়া গ্রামের আওয়াল ,রুহুল আমীন, জলিল, ফজলে রাব্বির কাছ থেকে মাছ ধরার জন্য উক্ত জমিগুলো এক বছরের জন্য ৬০ হাজার টাকায় পত্তন নিয়েছি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী নিবারন চক্রবর্তী জানান, বেড়ি বাধঁ কেটে মাছ নিধনের অভিযোগ পেয়েছি। স্থানীয় প্রশাসন ও জন প্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা করে এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ওয়ালীউল হাসান জানান,এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি। বেড়ি বাধঁ কেটে মাছ ধরার লোকজনদেরকে ডেকে অফিসে আনলে, তারা কাটা বেড়ি বাধঁ বেঁধে দিয়ে আর মাছ ধরবে না বলে অঙ্গিকার নামায় স্বাক্ষর করে যায়।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details