1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman Ruma
  3. anikbd@germanbangla24.com : Editor : Editor
  4. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  5. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
অনেকেই সঞ্চয় ভেঙে চলছে : ওবায়দুল কাদের জিয়ান ক্যাস্টিক্স ফ্রান্সের নতুন প্রধানমন্ত্রী নিরাপত্তা পরিস্থিতি দেখতে আচমকা লাদাখ সফরে নরেন্দ্র মোদী ‘ করোনার প্রভাব কমলেই টাইগারদের অনুশীলন শুরু হবে ’ মুগদা জেনারেল হাসপাতালে সাংবাদিকদের ওপর আনসার বাহিনীর হামলা করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় নতুন শনাক্ত ৩১৪৪ , মৃত ৪২ প্রতারণার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়া চক্রের তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি হয়রানির প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি পালন ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকদের বাংলাদেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ রেকর্ড ৩৬.০১৬ বিলিয়ন ডলার রাজাপুরে স্কুলের সম্পত্তি রক্ষায় মতামত সংগ্রহ ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি

ভারতে পাচার গৃহবধু উদ্ধার,স্বামীর বিচারের দাবি

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯
পাচারকারী আরিফ
Check for details

আরিফ ঢালী,বাগেরহাট প্রতিনিধি:স্বামী কর্তৃক গৃহবধু ভারতে পাচার হওয়ার ৯ মাস পর বাগেরহাটের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) উদ্ধার করেছে। বেনাপোল সীমান্ত পুলিশের সহায়তায় বাগেরহাট পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের পুলিশ পরিদর্শক মঞ্জুরুল হাসান মাসুদসহ সদস্যরা উদ্ধার করে বাগেরহাটে নিয়ে আসে। উদ্ধার হওয়া গৃহবধুকে বৃহস্পতিবার ১৬৪ ধারায় জবান বন্দি গ্রহনের জন্য আদালতে প্রেরনের প্রস্তুতি চলছে।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে মেয়ে খুজে না পেয়ে ওই গৃহবধূর মা বাদী হয়ে মানব পাঁচার প্রতিরোধ দমন আইনে বাগেরহাট আদালতে একটি মামলা করলে আদালত আমলে নিয়ে পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে আমরা বুধবার বেনাপোল সীমান্ত থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

মামলায় গৃহবধুর স্বামী নড়াইল সদর উপজেলার বড় কুলা গ্রামের আসাদ শেখের ছেলে আরিফ শেখ, আরিফের ভাই ফয়সাল শেখ, মাতা পরী বেগম এবং পিতা আসাদ শেখকে আসামী করা হয়।

উদ্ধার হওয়া গৃহবধু বৃহস্পতিবার দুপুরে বলেন, ২০১৭ সালের ১লা এপ্রিল আরিফের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে আরিফ আমাকে বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করত। আরিফের মা-বাবা আরিফের সাথে ভারত যেয়ে কাজ করে খেতে বলে। এসবের মধ্যে ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসের দিকে কৌশলে আরিফ আমাকে নিয়ে ভারতে চলে যায়। পরে বোম্বে একটি ফ্লাটে রাখে আরিফ আমাকে। সেখানে তিনটি মেয়ে ছিল। তিনদিন সেখানে থাকার পরে পাশের একটি ফ্লাটে নিয়ে যায়। সেই ফ্লাটে মাঝে মাঝে আরিফের বন্ধুরা আসত এবং আমাকে নির্যাতন করত। ওই ফ্লাটে দুই মাস থাকার পরে, বোম্বে পুলিশ আমাকে থানায় নিয়ে যায়। তখন আরিফ ছিল না। সেখান থেকে নবজীবন নামের একটি এনজিও-র কাছে আমাকে হস্তান্তর করে পুলিশ। সেখানে আটমাস থাকার পরে জাস্টিস এ্যান্ড কেয়ার বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা আমাকে নবজীবন এনজিও-র কাছ থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। তাদের কাছ থেকে পিবিআই আমাকে নিয়ে আসে।

উদ্ধার মেয়েটির বিধবা মা বলেন, অনেকদিন পরে মেয়েকে কাছে পেয়ে আমরা খুব খুশি হয়েছি। এখন আইনি প্রক্রিয়া শেষে মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে যেতে চাই। বিয়ে করে স্ত্রীকে যে পুরুষ পাঁচার করতে পারে, আমরা তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

বাগেরহাট পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক বলেন, আদালতের নির্দেশে আমরা পাঁচার হওয়া মেয়েটির বিষয়ে তদন্ত শুরু করি। একপর্যায়ে আমরা মেয়েটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হই। আদালতে ১৬৪ ধারার ওই মেয়েটির জবানবন্দী গ্রহনের প্রস্তুতি চলছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details