1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা করোনা : সাতক্ষীরা পুলিশের মোটরসাইকেল র‌্যালি ও মাস্ক বিতরণ লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব সখীপুরে ‘মুক্তিযুদ্ধের কবিতা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানির উদ্যোগে বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই, ২০১৮
Check for details

ফাতেমা রহমান রুমা: গত ১৪ই জুলাই শনিবার বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানি (রেজিঃ) উদ্যোগে ভুস্বর্গ বলে খ্যাত প্রকৃতির লিলাভূমি সুইজারল্যান্ডেরর লুজার্ন শহরে আনন্দঘন পরিবেশে উদযাপিত হলো বার্ষিক বনভোজন।

বনভোজন উপলক্ষে স্থানীয় সময় সকাল ৬টায় বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানি পরিবারটি ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে তাদের যাত্রা শুরু করেন। সাড়ে ৯টায় বাডেন বাডেনের একটি উন্মুক্ত পার্কে সকালের নাস্তা সেড়ে নেন তারা। সকাল সাড়ে ১০টায় ১২০ সদস্যের একটি বিশাল টিম ২টি বিলাসবহুল বাস নিয়ে ইউরোপের সর্ববৃহৎ জলপ্রপাত রাইনফালের উদ্দেশ্যে রওনা হন। সেখান ৩টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত লুজার্ন সি সংলগ্ন উন্মুক্ত পার্কে অবস্থান নিয়ে তারা দুপুরের খাবার পর্ব শেষ করেন।

বনভোজনে অংশগ্রহণকারীদের একাংশ

এর পর শুরু হয় বনভোজন উপলক্ষে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এর মধ্যে ছিল- ছোট্টমণিদের ছবি আঁকা, ছেলেদের জন্য ফুটবল ম্যাচ, মহিলাদের জন্য গেমস, কৌতুক আর গান। উৎসবমুখর পরিবেশে প্রবাসী বাঙালিরা মনখুলে আড্ডা দিয়ে বনভোজনের দিনটি উপভোগ করেন।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষ করে পরিবেশন করা হয় রাতের খাবার । এ সময় অনেকেই বনভোজন আয়োজক কমিটিকে ধন্যবাদ জানান। তারা বলেন, ’প্রবাসী বাঙালিরা এই ধরনের সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে বনভোজনের মতো বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করে নিজের মধ্যে ঐক্য ও সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রাখতে পারে।’

বনভোজন আয়োজন কমিটির সদস্যরা

সব শেষে অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ীদের মধ্যে পুরষ্কার প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানের সমাপনী পর্বে সংগঠনের পক্ষ থেকে সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানি শাখার সভাপতি মাহফুজ ফারুক। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন একটি সামাজিক সংস্কৃতিক সংগঠন। জার্মানে বসবাসরত বাংলাদেশীরা যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী, যারা স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি, যারা অসাম্প্রদায়িক এবং সংস্কৃতিমনা তাদের জন্য এই সংগঠনের দরজা সব সময়ই খোলা থাকবে।

নিজের মধ্যে আনন্দ-উচ্ছ্বাস ভাগাভাগি এবং ইউরোপের প্রকৃতির স্নিগ্ধতায় একটি দিন কাটিয়ে পরদিন ১৫ই জুলাই বনভোজনের পুরো টিমটি জার্মানির ফ্রাঙ্কফুটে ফিরে আসেন।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details