1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : germanbangla24.com : germanbangla24.com
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী ”ফারজাহান রহমান শাওন” বাগেরহাটে ৭ দিনব্যাপী বই মেলা শুরু জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি, বাচিকশিল্পী “জান্নাতুল ফেরদৌসী লিজা” টিকার দ্বিতীয় ডোজ ৮ সপ্তাহ পর : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ১৪ ফেব্রুয়ারি, উপেক্ষিত ‘সুন্দরবন দিবস’ জীবননগর পৌর নির্বাচন : আচরণবিধি লঙ্ঘন ,৩ জনের সাজা জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি শিল্পী ”বিথী পান্ডে” বাগেরহাটে ওরিয়ন গ্রুপের বিরুদ্ধে গ্রাম্য সড়ক দখলের অভিযোগ বাগেরহাটে জুয়েলারি দোকান হতে ১০০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি শিল্পী “সুনীল সূএধর”

পাত্রির কাছে নগ্ন সেলফি দাবি করে হবু বর, অবশেষে হাতকড়া পড়ে শ্রীঘরে

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০১৮
Check for details
  • ডেস্ক রিপোর্ট

বিয়েতে সোনা নয়, দাবি একটা নগ্ন সেলফির। হবু বর জিতেন্দ্র রামকৃষ্ণ এমনটাই দাবি করেছিলেন পাত্রীপক্ষের কাছে। শেষমেশ অবশ্য সেলফি নয়, পুলিশের হাতকড়া ওঠে পাত্র সমেত গোটা পরিবারের হাতে৷ ঘটনা ভারতের মুম্বাই শহরের থানের।

৩৩ বছর বয়সী জিতেন্দ্রর বিয়ে ঠিক হয়েছিল তার বাড়ির কাছেই৷ বিয়ের কথা পাকা হওয়ার পর থেকেই পাত্রীর কাছে একটি সেলফির দাবি জানাতে থাকে জিতেন্দ্র৷ তবে তা যেমন তেমন সেলফি হলে চলবে না, হতে হবে নগ্ন সেলফি৷ পাত্রী কিছুতেই হবু বরের সেই প্রস্তাবে রাজি না হলে অন্য পথ দেখেন জিতেন্দ্র৷ তখন ৩ লাখ পণের জন্য সে উঠেপড়ে লাগে৷

বারবার জিতেন্দ্র জানাতে থাকে, তার দাবি পূরণ হলে তবেই বিয়ে, নইলে বিয়ে নয়৷ পাত্রপক্ষের এমন ব্যবহারে বিরক্ত হয়ে পাত্রীপক্ষ বিয়ে বাতিল করে দেন৷ শুধু তাই নয়, নগ্ন সেলফি ও পণ চাওয়ার কথা জানিয়ে তারা সেই পাত্র ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগও করেন৷ সেই অভিযোগের ভিত্তিতে জিতেন্দ্রসহ তার পরিবারের সদস্যদের গ্রেফতারও করেছে পুলিশ৷

জানা গেছে,  সব ছেড়ে নগ্ন সেলফির দাবি ছিল জিতেন্দ্রর পাতা ফাঁদ৷ বিয়ে ঠিক হওয়ার বিষয়টিকে কাজে লাগিয়ে আরও টাকা পণ হিসেবে আদায় করাই ছিল তার লক্ষ্য৷ সেলফি হাতে পেলেই সে ব্ল্যাকমেল শুরু করত বলেই মনে করছেন কেউ কেউ৷

কারও কারও মতে, এ বিকৃত মানসিকতারই পরিচয়৷ আজকের দিনেও বিবাহ নামক সামাজিক প্রতিষ্ঠানটি কোন অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছে, তাই যেন চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে জিতেন্দ্র ও তার পরিবার৷

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details