1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানিতে বিএনপি’র কর্মীসভা ‘বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার’ : এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার জার্মান বিএনপির হেছেন প্রাদেশিক কমিটির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা

নেত্রকোনা জেলা বাস টার্মিনালে চরম অব্যবস্থাপনা

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ৩০ জুন, ২০১৮
Check for details

নেত্রকোনা প্রতিনিধি: নানা অব্যস্থাপনায় দীর্ঘদিন ধরে চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে নেত্রকোনা জেলা বাস টার্মিনালে আসা সাধারণ যাত্রীরা। বিশেষ করে যাত্রী ছাউনির নাজুক অবস্থার পাশাপাশি যাত্রীদের সেবায় নেই কোন শৌচাগার। এতে করে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে দূড়পাল্লার সাধারন যাত্রীদের। পৌরসভা থেকে কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত যাত্রী ছাউনিটির বর্তমানে নাজুক অবস্থার কারণ হিসেবে কতৃপক্ষ বাস মালিক সমিতিকে দায়ী করলেও নিন্ম মানের কাজ হওয়াকেই দায়ী করছেন মালিক সমিতি।

নেত্রকোনা পৌরসভার আওতাধীন শহেরর পারলা এলাকায় ১৯৮৬ সালে নির্মান করা হয় আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল। যেখান থেকে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলাচল করে কয়েকশতাধিক বাস। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে বাস টার্মিনালটির দূরাবস্থায় চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন দূরপাল্লার সাধারন যাত্রীরা। বিশেষ করে বর্তমানে টার্মিনালে যাত্রী ছাউনি বা বিশ্রামাগার না থাকার পাশাপাশি নেই কোন শৌচাগার। যে করনে দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন নিয়মিত স্ট্যান্ডে আসা বাস ড্রাইভারসহ যাত্রী সাধারনের।
কিন্ত গত ২০১০সালে পৌরসভার উদ্যোগে কোটি টাকা ব্যায়ে অত্যাধুনিক বিশ্রামাগার নির্মান করা হলেও তা কোন প্রকার কাজে আসেনি যাত্রীদের এমন অভিযোগ ড্রাইভার,মালিক ও পরিবহন শ্রমিক সমিতি সদস্যসহ স্থানীয়দের। সেইসাথে ড্রেইনেজ ব্যবস্থা ভালো না হওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতেই ময়লা আবর্জনার পানিতে তলিয়ে টার্মিনাল এলাকা পরিনত হয় চরম খানা খন্দে। যেখানে হেটে যাওয়াত দূরের কথা দাড়িয়ে থাকাও দুস্কও বলে জানান ভোক্তভোগীরা।

এদিকে যাত্রী ছাউনী নির্মান করা হলেও মালিক সমিতি বুঝে নেয়ার আগেই তা ভেঙ্গে যায়। দীর্ঘদিন ধরে ডেইনেজ ব্যাবস্থার উন্নয়ন না হওয়ায় বাস টার্মিনালের এমন বেহাল অবস্থা বলে অভিযোগ জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক আরিফ খানের। তিনি আরও জানান প্রতিবছর পৌরসভা বাসস্ট্যান্ড ইজার বাবদ প্রায় ৭ থেকে ৮ লাখ টা দেওয়া হয়। তাই টার্মিনাল এলাকা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্বও পৌর কতৃপক্ষের।
এদিকে মালিক সমিতি সঠিক ভাবে রক্ষণাবেক্ষন না করায় টার্মিনালের যাত্রী ছাউনিটির বেহাল অবস্থা হয়েছে। তবে টার্মিনালটিকে আবারো পুনঃনির্মানের আশ্বাস প্রদান করলেন নেত্রকোণা পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম খান।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details