1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মান বিএনপির হেছেন প্রাদেশিক কমিটির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা করোনা : সাতক্ষীরা পুলিশের মোটরসাইকেল র‌্যালি ও মাস্ক বিতরণ লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব

নিজস্ব অর্থায়নে রাস্তা মেরামত করলেন শিক্ষক

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৯
Check for details

শামীম খান,মহেশপুর প্রতিনিধি:ঝিনাইদহের ৭নং মহারাজপুর ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের উত্তরপাড়া থেকে খামারাইল যাওয়ার রাস্তাটি দীর্ঘদিন যাবৎ অবহেলিত থাকায় অবশেষে রাস্তাটি নিজ উদ্যোগে, নিজস্ব অর্থে সংস্কার করলেন রামনগর গ্রামের আশাদুল ইসলামের ছেলে তৌফিক তোতা।

রামনগর গ্রামের উত্তরপাড়া (মৃত মালেক বিশ্বাসের বাসার পাশে) একটু বৃষ্টি হলেই চলাচলের সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পড়ত। যার ফলে এখানকার জনগনের ব্যাপক দুর্ভোগে পড়তে হতো। এমনকি অনেক সময় কিছু কিছু যানবাহন এখানে আটকে পড়ে থাকতো। প্রয়োজন থাকা সত্বওে খামারাইল গ্রামের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হতো না।
গ্রামবাসী এলাকার সম্মানিত ৭ নং মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ঝিনাইদহ সদর) চেয়ারম্যানের প্রতি দৃষ্টি জ্ঞাপন করেছিলেন। তাতে কোন ফল আসেনি। হয়তো ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনেক দুরে তাই এ গ্রামের প্রতি একটু নজর কম। তা না হলে দির্ঘদিন ধরে রামনগর গ্রামের উত্তরপাড়া মৃত মালেক বিশ্বাসের বাসার পাশে একটু বৃষ্টি হলেই যাতায়াত বিছিন্ন হয়ে যাওয়া রাস্তাটির প্রতি কখনো ইউপি চেয়ারম্যন, ওয়ার্ড মেম্বর কেহ আমলে নেয়নি কেন।

কালিগঞ্জ সলিমুন্নেসা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক তৌফিক তোতা সহ অনেকের প্রতিদিন উক্ত কর্দমাক্ত রাস্তা দিয়ে বিদ্যালয়ে ও বিভিন্ন কাজে যাতায়াত করতে হয়।
প্রতিদিন সমস্যার সম্মুখীন হতো তাই কাঁদার হাত থেকে বাঁচার জন্য নিজ খরচে ভাটা থেকে ঘেষ (নষ্ট ইট) কিনে খারাপ রাস্তার স্থানে দিয়ে নিজে এবং গ্রামবাসীদের মুক্ত করে।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details