ধানোরা স্কুলের পক্ষে এমপিওর জন্য দাবী তুলেছেন শিক্ষার্থীরা

রাজশাহীর তানোর কামারগাঁ ইউপির ধানোরা উচ্চ বিদ্যালয় এমপিও করার দাবি শিক্ষার্থীদের
Check for details

একেএম বাবু তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধি:রাজশাহীর তানোর কামারগাঁ ইউপির ধানোরা উচ্চ বিদ্যালয় গত ২০০১ সালে প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। দির্ঘ্য ১৯ বছর ধরে শিক্ষকেরা এ বিদ্যালয়ের পাঠদান করে শত ভাগ নিয়মিত রেজাল্ট তাদের মাধ্যমে এসেছে। উক্ত বিদ্যালয়ে ছাত্র ছাত্রীদের নিয়মিত উপস্থিতির হার গড় ২৪০জন কিন্তুু এখন পর্যন্ত ধানোরা উচ্চ বিদ্যালয়ের এমপিও ভুক্ত হয়নি। আর সে কারনে অত্র স্কুলের সকল শিক্ষক কর্মচারীরা একেবারে অসহায় ও মানবেতর জীবনযাপন করছে?

সরেজমিন উপস্থিত হয়ে শিক্ষক ছাত্র ছাত্রী ও স্কুল সভাপতির সাথে কথা বলে এ সব কথা জানা গেছে। এদিকে বর্তমানে বিদ্যালয়টির বিল-বেতনের জন্য এমপির মনোনিত ব্যক্তির মাধ্যমে দোড় ঝাপ শুরু করেছেন জার্মান বাংলা নিইজ টোয়েন্টিফোরের মাধ্যমে প্রধান শিক্ষক ও স্কুল সভাপতি এ কথা জানিয়েছেন।

প্রধান শিক্ষক বলেন তানোর গোদাগাড়ী আসনের (এমপি) আমাদের অবিভাবক আলহাজ ওমর ফারুক চৌধুরী তিনি আমাদের অসহায়ত্ব অভাবের বিষয়টি এবার হয়তো দেখবে, যা বিভিন্ন লোক মুখে এ কথা শুনছি?এছাড়া বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শিক্ষা অনুরাগী (এমপি) আলহাজ ওমর ফারুক চৌধুরীর কাছে অত্র স্কুলের এমপিও ভুক্ত করার জন্য জোর ভাবে দাবী তুলেছেন।

অপরদিকে ১৩ জুলাই মঙ্গলবার সকালে তানোর উপজেলা আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, তোফাজ্জল হোসেন খাঁন সে সময় বিদ্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন। তাছাড়া দেখা গেছে অত্র এলাকার দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চকপ্রভুরাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং কাজীপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, এমপির উন্নয়নের অনুদান, চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়নার পক্ষে বঙ্গবন্ধু কর্ণার সহ পরিদর্শন করেন তোফাজ্জল হোসেন খাঁন। তিনি বলেন সব ভেদাভেদ ভুলে উন্নয়ন মাধ্যমে এমপির হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। তানোর উপজেলার চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না তিনি এমপির পক্ষে নিয়মিত উন্নয়ন গুলি তরার্নিত করার লক্ষে নিয়মিত মাঠ পর্যায়ের খোজ খবর নিচ্ছেন, আমরাও তাকে সার্বিক সহযোগিতা করবো ইনশাআল্লাহ

পরিশেষে তোফাজ্জল হোসেন খাঁন ধানোরা উচ্চ বিদ্যালয়ের পড়ে থাকা অসমাপ্ত রুমের জন্য সার্বিক সহযোগিতা উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে চেয়েছেন ।

Facebook Comments