দুদকের অভিযান:ছয় জেলা প্রশাসককে দুদকের চিঠি

Check for details

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ঢাকা জেলার দোহার উপজেলায় অবস্থিত মৈনট ঘাট এলাকায় স্পিডবোর্ড এবং ট্রলার পারাপারের সময় নিয়ম বহির্ভূতভাবে ইজারা আদায়ের অভিযোগে গতকাল বৃহস্পতিবার অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে জানতে পারে, উক্ত ঘাটে ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে ইজারা চুক্তি সম্পাদন প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে, কিন্তু গত ১৪ ই এপ্রিল তারিখ হতে ইজারা ব্যতিরেকেই জনৈক প্রভাবশালী ইজারাদার নুরুল ইসলাম অবৈধভাবে প্রত্যেকটি স্পিডবোট ও ট্রলার থেকে ইজারা আদায় করে আসছেন। এভাবে প্রতিদিন ১ লক্ষ টাকা হারে গত এক মাসে প্রায় ৩০ লক্ষাধিক টাকা জনসাধারণের নিকট হতে অবৈধভাবে আদায় করা হয়েছে। দুদক টিম এ অনিয়মের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যাবলী সংগ্রহপূর্বক কমিশনে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন উপস্থাপন করবে।

অপরদিকে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট আদর্শ বিদ্যানিকেতন বিদ্যালয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের বাধ্যতামূলকভাবে কোচিং করানোর অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন – ১০৬) এ আগত অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয়ের একটি এনফোর্সমেন্ট টিম রাজধানীর মানিকদীতে অবস্থিত উক্ত বিদ্যালয়ে অভিযান চালায় । টিম অভিভাবকদের সাথে কথা বলে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পায়। জানা যায় যে, কোচিং করানোর নামে শিক্ষার্থীপ্রতি ৭০০-৯০০ টাকা গ্রহণ করা হচ্ছে। অবিলম্বে এ অবৈধ কোচিং বন্ধে প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল মালিককে অনুরোধ করে দুদক টিম।
এদিকে বরিশালের বাকেরগঞ্জ পৌরসভার যুব উন্নয়ন কেন্দ্রে প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণ ভাতা আত্মসাতের অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক, সমন্বিত জেলা কার্যালয়, বরিশাল-এর একটি টিম। দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে অভিযোগ আসে, উক্ত কেন্দ্রে প্রতি ব্যাচে ৬০ জন ছাত্রের জন্য থাকা-খাওয়ার জন্য মাথাপিছু ৩০০০ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়, কিন্তু সকল প্রশিক্ষনার্থী প্রশিক্ষণে যোগ না দিলেও সকলকে উপস্থিত দেখিয়ে টাকা উত্তোলনপূর্বক আত্মসাৎ করা হয়। টিম সরেজমিন অভিযানে দেখে, চলমান ব্যাচে ৬৪ জন ছাত্রের মধ্যে ৪৮ জন নিবন্ধন করেছেন, তন্মধ্যে ক্লাস করছেন মাত্র ২১ জন। অথচ পূর্ববর্তী সকল প্রশিক্ষণেই শতভাগ প্রশিক্ষনার্থীর নিবন্ধন দেখানো হয়েছে। এক্ষেত্রে পূর্বের কোর্সগুলোতে ভুয়া প্রশিক্ষনার্থী সাজিয়ে টাকা উত্তোলন ও আত্মসাৎ করা হয়েছে মর্মে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়ে দুদক টিম যাচাইয়ের জন্য সকল প্রশিক্ষনার্থীর বিস্তারিত তথ্যাবলি সংগ্রহ করে। এ অভিযোগের বিষয়ে অনুসন্ধানের সুপারিশ করে টিম কমিশনে রিপোর্ট পেশ করবে।
এছাড়াও দুদক হটলাইনে প্রাপ্ত বিভিন্ন জেলা কারাগার ও পাসপোর্ট অফিসের ঘুষ, দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণপূর্বক কমিশনকে অবহিত করার জন্য বান্দরবান, নড়াইল, সাতক্ষীরা, চাঁদপুর, কক্সবাজার ও মেহেরপুর-এর জেলা প্রশাসককে পত্র প্রদান করা হয়।

Facebook Comments