1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : germanbangla24.com : germanbangla24.com
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী ”মঞ্জু সাহা” জার্মানবাংলা’র ”প্রবাসির সাফল্য” শো’র এবারের অতিথি ”মিনহাজ দীপন” জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী ”ফারজাহান রহমান শাওন” বাগেরহাটে ৭ দিনব্যাপী বই মেলা শুরু জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি, বাচিকশিল্পী “জান্নাতুল ফেরদৌসী লিজা” টিকার দ্বিতীয় ডোজ ৮ সপ্তাহ পর : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ১৪ ফেব্রুয়ারি, উপেক্ষিত ‘সুন্দরবন দিবস’ জীবননগর পৌর নির্বাচন : আচরণবিধি লঙ্ঘন ,৩ জনের সাজা জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি শিল্পী ”বিথী পান্ডে” বাগেরহাটে ওরিয়ন গ্রুপের বিরুদ্ধে গ্রাম্য সড়ক দখলের অভিযোগ

ডেইলি বাংলাদেশের বার্তা সম্পাদকের পিতৃবিয়োগ

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৮
Check for details

জার্মানবাংলা২৪ ডটকম: অনলাইন নিউজ পোর্টাল ডেইলি বাংলাদেশের বার্তা সম্পাদক কাজী লুৎফুল কবীরের বাবা মেজর অবসরপ্রাপ্ত কাজী রফিকুল হক মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্টগ্রাম সেনানিবাসের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তিনি মারা যান।

৮৪ বছর বয়সী কাজী রফিক বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন বলে জানান তার ছোট ছেলে ডেইলি বাংলাদেশ-এর বার্তা সম্পাদক কাজী লুৎফুল কবীর।

তার মৃত্যুতে জার্মান বাংলা২৪ ডটকম পরিবার গভীর শোক প্রকাশ করেছে।

কাজী লুৎফুল কবীর জানান, রোববার সকাল ৯টায় তার চট্টগ্রামে ২৪ পদাতিক ডিভিশনের ইবিআরসি প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এতে উপস্থিত থাকবেন ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আলম।

পরে বালুচড়ায় নিজ বাসভবনে নেয়া হবে তার মরদেহ। যেখানে তিনি দীর্ঘ ২৬ বছর কাটিয়েছেন। সেখানে সকাল ১০টায় বালুচড়া বায়তুল কাদের জামে মসজিদ ঈদগাঁয় মরহুমের দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

পরে সেখানে এলাকাবাসীর শ্রদ্ধার জন্য কাজী রফিকের মরদেহ রাখা হবে। দুপুরে গ্রামের বাড়ি ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার মধুগ্রামে নেয়া হবে তার মরদেহ। সেখানে আরেকটি জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

মেজর রফিকের স্ত্রী, তিন ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। তার বড় ছেলে মেজর অবসরপ্রাপ্ত কাজী হুমায়ুন কবীর একটি বেসরকারি কোম্পানিতে কর্মরত।

১৯৫২ সালে মেট্রিকুলেশন করেন রফিক। এরপর পাকিস্তান আর্মিতে যোগ দেন। ১৯৭৮ সালে তিনি বাংলাদেশ আর্মিতে জিএল কমিশন লাভ করেন। তিনি সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন সময় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করেন। বিশেষ করে ২৪ পদাতিক ডিভিশন চট্টগ্রামে স্টেশন স্টাফ অফিসার, সাভারের নবম ডিভিশনে স্টেশন স্টাফ অফিসার, অর্ডন্যান্স কোরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।

সবশেষ তিনি ইবিআরসি সেন্টার অ্যান্ড স্কুলের রেকর্ড উইংয়ে সিনিয়র ডিকিইউ’র দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৯ সালে সামরিক বাহিনী থেকে অবসরে যান মেজর কাজী রফিকুল হক।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details