1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা করোনা : সাতক্ষীরা পুলিশের মোটরসাইকেল র‌্যালি ও মাস্ক বিতরণ লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব সখীপুরে ‘মুক্তিযুদ্ধের কবিতা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে ২৮৬ কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ১১৪ মামলার আসামি

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৮
Check for details
  • গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ১৫ মে। নির্বাচনে ইতিমধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেয়া শেষ হয়েছে। ২৩ এপ্রিল প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সঙ্গে প্রার্থীরা তাদের হলফনামাও জমা দিয়েছেন। প্রার্থীদের হলফনামা পর্যালোচনায় দেখা গেছে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী ২৮৬ সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ১১৪ জনই বিভিন্ন মামলার আসামি।

প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থীদের নামেও মামলা রয়েছে। পাঁচটি ওয়ার্ডের ২০ প্রার্থীর নামে কোনো মামলা নেই। তিনটি ওয়ার্ডের প্রত্যেক প্রার্থীর নামেই মামলা রয়েছে। এছাড়া ২১ নম্বর ওয়ার্ডের পাঁচ প্রার্থী, ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডের ছয় প্রার্থী, ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের তিন প্রার্থী, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রার্থী ও ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের দুই প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই। আর ২০ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজন, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজন ও ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রার্থীর নামে মামলা রয়েছে।

সিটি কর্পোরেশনের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর ফয়সাল আহমেদ সরকার। এবারের নির্বাচনেও তিনি কাউন্সিলর প্রার্থী। তার বিরুদ্ধে রয়েছে চারটি মামলা। যার সবগুলোই রাজনৈতিক মামলা। গাজীপুর সদর থানা বিএনপির দফতর সম্পাদক ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের বতর্মান কাউন্সিলর তানভীর আহম্মেদ জানান, তিনি এবারও কাউন্সিলর প্রার্থী। তার বিরুদ্ধে রয়েছে আটটি মামলা। তিনি বলেন, ‘আমি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার।’

হলফনামা থেকে জানা গেছে, ১ নম্বর ওয়ার্ডের ছয় প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২ নম্বর ওয়ার্ডের আট প্রার্থীর মধ্যে পাঁচজন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে দুইজন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাত প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজনের মধ্যে একজন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ১০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১১ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে চারজন, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে দুই প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২২ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে ছয়জন,২৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাতজনের মধ্যে দুইজন, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে ১২ জনের মধ্যে পাঁচজন, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ২৬ নং ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজনের নামে মামলা রয়েছে।

এছাড়াও ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে চারজন, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে একজন, ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে সাত প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৩২ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে একজন, ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে দুইজন, ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে চারজনই, ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে দুইজন, ৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাতজনের মধ্যে চারজন, ৪০ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে দুইজন, ৪২ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে একজন, ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে

দুইজন, ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডে ১১ প্রার্থীর মধ্যে চারজন, ৫০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৫১ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৫২ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন, ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে দুইজন, ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে তিনজন, ৫৫ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন, ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন ও ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে একজনের নামে মামলা রয়েছে।

গাজীপুর জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মো. সোহরাব উদ্দিন জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে যে সব প্রার্থীর বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে তাদের বেশিরভাগ প্রার্থীই বিএনপি সমর্থক। বিগত সাড়ে চার বছরে তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে হয়রানিমূলক ও মিথ্যা রাজনৈতিক মামলা দেয়া হয়েছে। এসব মামলা কাঁধে নিয়েও তারা এলাকার জনগণের জন্য কাজ করে গেছেন।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details