1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : germanbangla24.com : germanbangla24.com
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানবাংলা’র ”প্রবাসির সাফল্য” শো’র এবারের অতিথি ”মিনহাজ দীপন” জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি কণ্ঠশিল্পী ”ফারজাহান রহমান শাওন” বাগেরহাটে ৭ দিনব্যাপী বই মেলা শুরু জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি, বাচিকশিল্পী “জান্নাতুল ফেরদৌসী লিজা” টিকার দ্বিতীয় ডোজ ৮ সপ্তাহ পর : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ১৪ ফেব্রুয়ারি, উপেক্ষিত ‘সুন্দরবন দিবস’ জীবননগর পৌর নির্বাচন : আচরণবিধি লঙ্ঘন ,৩ জনের সাজা জার্মানবাংলা’র ‘মিউজিক্যাল লাইভ শো’র এবারের অতিথি শিল্পী ”বিথী পান্ডে” বাগেরহাটে ওরিয়ন গ্রুপের বিরুদ্ধে গ্রাম্য সড়ক দখলের অভিযোগ বাগেরহাটে জুয়েলারি দোকান হতে ১০০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি

খুলনা-৪ আসনের এমপি সুজার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ২৭ জুলাই, ২০১৮
Check for details

জার্মানবাংলা২৪ ডটকম: বৃহস্পতিবার ২৬ জুলাই রাত ১২টা ৫ মিনিটে তিনি সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ, খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম মোস্তফা রশিদী সুজা। (ইন্নালিল্লাহি—-রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর।

আওয়ামী লীগের এই নেতার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার পৃথক শোকবার্তায় তারা মরহুমের বিদ্রেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, এমপি সুজা এলাকার উন্নয়নসহ গণতন্ত্র বিকাশে অবদান রেখেছেন। তিনি মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

অপর এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সাংসদ সুজা জনগণের হৃদয়ে চিরদিন বেঁচে থাকবেন। প্রধানমন্ত্রী মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

১৯৯০ সালের পর তিনি খুলনা-৪ (রূপসা, তেরখাদা ও দীঘলিয়া) আসন থেকে তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত তিনি জাতীয় সংসদে হুইপের দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৮ সালে তিনি সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেননি। সর্বশেষ ২০১৪ সালে সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে তিনি জয়লাভ করেন।

ছাত্র ইউনিয়নের রাজনীতির মধ্যদিয়েই তার রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়। এরপর আবাহনী ক্রীড়াচক্রের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি খুলনা পৌরসভার কমিশনার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া আমৃত্য তিনি আবাহনী ক্রীড়া চক্র ও খুলনা নাট্য নিকেতনের সভাপতিসহ বিভিন্ন ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details