1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মানিতে বিএনপি’র কর্মীসভা ‘বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার’ : এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার জার্মান বিএনপির হেছেন প্রাদেশিক কমিটির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জামায়াতকে নিয়ে কৌশলী বিএনপি

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ২২ এপ্রিল, ২০১৮
Check for details
  • খুলনা প্রতিনিধি

খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতকে নিয়ে বিএনপি কৌশলী ভূমিকায় রয়েছে। নির্বাচনি ময়দানে পাঁচটি ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে জামায়াতের প্রার্থী রয়েছে। ওই পাঁচটি ওয়ার্ডে বিএনপিও দলীয় মনোনয়ন দিয়ে প্রার্থী রেখেছে। আবার মেয়র পদ নিয়ে বিএনপির সঙ্গে ২০ দলীয় জোটের বৈঠক হচ্ছে। কিন্তু জামায়াত প্রকাশ্যে আসছে না। ৫০ হাজারের বেশি রিজার্ভ ভোট নিয়ে জামায়াতও রয়েছে সতর্ক অবস্থানে। পাঁচজন কাউন্সিলর প্রার্থী নিয়ে বিএনপির সঙ্গে জামায়াত অনেকটা নীরবেই দেনদরবার করছে। বিএনপি বিভিন্ন ঘরোয়া বৈঠকে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পক্ষে জনমত তৈরিতে কাজ করছে ২০ দলের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে।

এ বিষয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘কেসিসি নির্বাচনে বিএনপির শরিকরা সুযোগ-সুবিধা অনুযায়ী জোটের সঙ্গে থাকবেন। জামায়াতের সঙ্গে পুলিশ কীভাবে আচরণ করবে, সেই অনুযায়ী তাদের আলাদা কৌশল থাকতে পারে। তবে এতে বিএনপির কোনও সমস্যা হবে না।’

জামায়াতের মহানগর অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট মো. শাহ আলম বলেন, ‘১৯৯৪ সালে সিটি নির্বাচনে জামায়াতের মেয়র প্রার্থী অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার প্রায় ২৮ হাজার ভোট পেয়েছিলেন। এরপর চব্বিশ বছর অতিবাহিত হয়েছে। এসময়ে জামায়াতের ভোট ৫০ হাজার থেকে বেড়ে ৭০ হাজার হয়েছে। যা সিটি নির্বাচনে প্রভাব ফেলবে।’ তিনি বলেন, ‘আমরা বিএনপিকে সহযোগিতা দেওয়ার কথা বলেছি। পাশাপাশি সিটি নির্বাচনে পাঁচটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে জামায়াতের প্রার্থীর জন্য বিএনপির কাছে সমর্থন চাওয়া হয়েছে। বিএনপি পাঁচজনকে সমর্থন দিলে আমরা জামায়াতের ভোট ব্যাংক নিয়ে তাদের সহযোগিতা করবো।’

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details