কেন্দুয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হাঁস খামারির পাশে ছাত্রলীগ নেতা

Check for details

সোহান আহমেদ কাকন, নেত্রকোনা প্রতিনিধি: সম্প্রতি নেত্রকোনার কেন্দুয়াা বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছবিটা গ্রামে শত্রুতার জেরে শারীরিক প্রতিবন্ধী হাঁস খামারি আবুল কাশেমের ৮শত হাঁস বিষ প্রয়োগ করে মেরে ফেলার ঘটনা ঘটে। আর এমন নিকৃষ্ট ঘটনার খবর ছড়িয়ে পরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে।এরই প্রেক্ষিতে সোমবার বিকেলে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আবুল কাশেমের খোঁজ খবর নেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী। এ সময় তিনি আবুল কাশেমের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ছাত্রলীগ তার পাশে থাকবে বলে ঘোষণা দেন। আর এই ভিডিও কনফারেন্সের খবর ছড়িয়ে পরে ফেইসবুকে।

এরই প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় নেতা গোলাম রব্বানীর দেয়া কথাকে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে মঙ্গলবার দুপুরে দুইশত হাঁস কেনার জন্য ২৮ হাজার টাকা নিয়ে ছবিলা গ্রামে হাজির হন নেত্রকোনা জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোবায়েল আহমেদ খান। এ সময় তিনি আবুল কাশেমের হাতে নগদ ২৮ হাজার টাকা তুলে দেন। এমন দুঃসময়ে ছাত্রলীগ নেতাদের পাশে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়েন আবুল কাশেম। এ সময় তিনি বলেন আমার উপার্জনের একমাত্র অবলম্বন হাঁস গুলো মারা যাওয়ার ফলে আমি অনেকটা নিশ‍্ব হয়ে পরেছিলাম। তবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ও নেত্রকোনা জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমার পাশে দাঁড়িয়ে আবারো দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আমি দোয়া করি ভবিষ্যতে তারা যেন আরো অনেক সম্মানিত পদের অধিকারী হন। পরে মোবাইল ফোনে গোলাম রব্বানীর সাথে কথা বলেন আবুল কাশেম। তিনি গোলাম রব্বানী ও তার নেতাকর্মীদের দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

এ ব্যাপারে সোবায়েল আহমেদ বলেন, আমার কেন্দ্রীয় নেতা গোলাম রব্বানী ভাইয়ের দেয়া কথা বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে আমি নিজ তহবিল থেকে কিছু অর্থ দিয়ে আবুল কাশেমের পাশে দাঁড়াতে পেরে অনেকটা গর্ব বোধ করছি। সেই সাথে আসা করছি জেলা ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতাকর্মীরাও তার পাশে দাঁড়াবে। এদিকে এর আগে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শরিফুল ইসলাম আবুল কাশেমের হাতে নগদ পাঁচ হাজার টাকা তুলে দেন।

Facebook Comments