1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. adminmonir@germanbangla24.com : monir uzzaman : monir uzzaman
  3. fatama.ruma007@gmail.com : Fatama Rahman Ruma : Fatama Rahman
  4. anikbd@germanbangla24.com : SIDDIQUE ANIK : ANIK SIDDIQUE
  5. infi@germanbangla24.com : Hasan Imam Juwel : Hasan Imam Juwel
  6. rafid@germanbangla24.com : rafid :
  7. SaminRahman@germanbangla24.com : Samin Rahman : Samin Rahman
শিরোনাম :
জার্মান বিএনপির হেছেন প্রাদেশিক কমিটির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত জার্মানির মানহাইমে জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী ও গ্রিল পার্টি লেবাননে শাহ্জালাল প্রবাসী সংগঠনের দ্বশম বর্ষ পূর্তি উদযাপন ও সভাপতিকে বিদায়ী স্বংবর্ধনা করোনা টিকার প্রসঙ্গে ও করোনার তৃতীয় ঢেউ: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া রাষ্ট্রদূত, জার্মানি বাংলাদেশ জার্মান জাতীয়তাবাদী কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে সেপটি ট্যাংকের সেন্টারিং খুলতে গিয়ে নিহত ২ জামালপুরে ‘বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন’ এর মাক্স বিতরণ করোনা : সখীপুরে লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা করোনা : সাতক্ষীরা পুলিশের মোটরসাইকেল র‌্যালি ও মাস্ক বিতরণ লেবানন বিএনপির সভাপতি বাবু, সম্পাদক আইমান, সাংগঠনিক হাবিব

উৎসবমুখর পরিবেশে মাইনজ শহরে বাঙালিদের ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠিত

জার্মানবাংলা২৪ রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ৫ জুলাই, ২০১৮
Check for details

ফাতেমা রহমান রুমা: নানা উৎসবপর্ব আর বিশেষ দিনের অনুষ্ঠানগুলো শত ব্যস্ততার মাঝেও ব্যাপক আগ্রহ আর উদ্দীপনায় উদযাপন করে থাকেন জার্মান প্রবাসী বাঙালি কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠন।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ৩০ জুন জার্মানিতে অনুষ্ঠিত হয় মাইনজ প্রবাসীদের ঈদ পুর্নমিলনী। উৎসবমুখর পরিবেশে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জার্মানির মাইনজ প্রবাসী বাঙালি কমিউনিটি।

ওই দিন মাইনজ শহরের Volkspark-এ জার্মান প্রবাসী বাঙালিরা মিলিত হন সৌহার্দ আর সৌভ্রাতৃত্বের বন্ধনে নিজেদের মধ্যে ঈদ পরবর্তী আনন্দ ভাগাভাগি করতে।

ফ্রাঙ্কফুর্ট, মানহাইম, বিজবার্ডেন ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় বসবাসকারী অনেক প্রবাসী বাংলাদেশী এই ঈদ পুর্নমিলনীতে অংশগ্রহণ করেন। দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসা প্রবাসীরা একে অপরকে কাছে পেয়ে নিজেদের মধ্যে এক আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। প্রাকৃতিক সুন্দর পরিবেশে নিজেদের মধ্যে তারা আড্ডা আর স্মৃতিময় গল্পে উচ্ছ্বাসময়ভাবেই কাটান দিনটি।

প্রবাসীদের এই মিলন মেলায় বাড়তি আকর্ষণ ছিল ছোট ছোট বাচ্চাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ, নানা ধরনের খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের শেষপর্বে ছিল বাঙালিদের ঐতিহ্যবাহী বিভিন্ন পিঠা-পুলি আর সুস্বাধু খাবারের বিশেষ পরিবেশনা।

শেয়ার করুন:
এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেসবুকে জার্মানবাংলা২৪

বিজ্ঞাপন

Check for details